নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় একাত্তর টেলিভিশনের নোয়াখালী প্রতিনিধি মিজানুর রহমানকে লাঞ্ছিত করার ঘটনার চার দিন পার হলেও প্রশাসন থেকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা না নেওয়ার প্রতিবাদে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন করা হয়েছে।

রবিবার সকালে নোয়াখালী পুলিশ সুপারের কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে এ মানববন্ধন পালন করেন জেলায় কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।

চ্যানেল টুয়েন্টিফোরের জেলা প্রতিনিধি সুমন ভৌমিকের সঞ্চালনায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বক্তব্য দেন- নোয়াখালী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি বখতিয়ার শিকদার, সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল হক আনোয়ার, জামাল হোসেন বিষাদ, সিনিয়র সাংবাদিক লিয়াকত আলী খানসহ অনেকে।

বক্তারা বলেন, ঘটনার পর বেগমগঞ্জ থানায় সাংবাদিক মিজানুর রহমান একটি লিখিত অভিযোগ দেন। কিন্তু চার দিন পার হলেও অজ্ঞাত কারণে তা এখনও এজাহারভুক্ত এবং হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয়নি প্রশাসন। অভিযুক্তরা এলাকায় নেই বলছে পুলিশ, অথচ অভিযুক্ত সবাই প্রকাশ্যে ঘুরাঘুরি, বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করছে এমন একাধিক ছবি ও তথ্য রয়েছে সাংবাদিকদের কাছে। এ ঘটনায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের নির্বাক ভূমিকায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন বক্তারা।

বক্তারা আরও বলেন, দ্রুত সময়ের মধ্যে সাংবাদিক মিজানুর রহমানের ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করা না হলে আরও কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি দেন তারা।

প্রসঙ্গত, সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গত বুধবার (১ জুন) বেগমগঞ্জের বাংলাবাজার এলাকায় খাবার বিতরণ কর্মসূচি নেওয়া হলে সেখানে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্যাহ বুলুসহ দলের নেতাকর্মীরা যান। কর্মসূচি শুরুর সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় যুবলীগের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে কর্মসূচিস্থলে এসে হামলা চালায় এবং কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ করে। এসময় হামলার ভিডিও ধারণ করতে গেলে সাংবাদিক মিজানুর রহমানের মোবাইল ছিনিয়ে নেয় এবং তাকে লাঞ্ছিত করে হামলাকারীরা। পরে, দুই ঘণ্টার পর তাকে মোবাইল ফেরত দেয়। তবে মোবাইলের সকল ভিডিও মুছে দেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.